জন্মজয়ন্তীতে ডলি আনোয়ারকে স্মরণ ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

সত্তর, আশি দশকের অভিনয়শিল্পী ও আলোকচিত্রশিল্পী ডলি আনোয়ার। প্রয়াত এ ব্যক্তিত্বের ৭০তম জন্মজয়ন্তীতে স্মরণ ও চলচ্চিত্রের প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে ম্যুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটি।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা সম্মেলন কক্ষে রবিবার সন্ধ্যা ৬টায় এ স্মরণানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

১৯৪৮ সালের ১ জুলাই ডলি আনোয়ারের জন্ম, মারা যান ১৯৯১ সালের ৩ জুলাই। তিনি প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও নারীনেত্রী-লেখিকা ড. নীলিমা ইব্রাহিম মেয়ে। ডলির স্বামী ছিলেন কিংবদন্তি আলোকচিত্রী ও চিত্রগ্রাহক আনোয়ার হোসেন।

বাংলাদেশ টেলিভিশনের প্রথম নাটক ‘একতলা দোতলা’র মধ্য দিয়ে ডলি অভিনয়ে যাত্রা শুরু করেন। ঢাকার মঞ্চ নাটকের সাথে যুক্ত হন ১৩ বছর বছর বয়সে। সাংবাদিকতার সাথেও যুক্ত ছিলেন। ‘সাতদিন’ নামের একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা সম্পাদনা করেছেন তিনি।

বড়পর্দায় ডলির যাত্রা শুরু হয় বাংলাদেশের অন্যতম সেরা চলচ্চিত্র ‘সূর্য দীঘল বাড়ী’ দিয়ে। এতে প্রধান চরিত্র জয়গুনের রূপে তাকে দেখা যায়। পরিচালনা করেন মসিহউদ্দিন শাকের ও শেখ নিয়ামত আলী। এ সিনেমার জন্য ডলি ১৯৭৯ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।

১৯৮৬ সালে শেখ নিয়ামত আলী নির্মিত আরেক বিখ্যাত চলচ্চিত্র ‌‘দহন’-এ অভিনয় করেন।

Add Comment