রণবীরের এই জিনিসগুলোর দাম জানেন

বলিউডের সুপারস্টার রণবীর কাপুর বেশ সৌখিন মানুষ। তার ব্যবহৃত শখের জিনিসপত্রের দাম শুনলেই সেটা বোঝা যায়। অনেকের মুখেই শোনা যায় প্রতিদিনই নাকি জামাকাপড় কেনাকাটা করেন রণবীর।

শুধু তাই নয় ঘড়ি, গাড়িও বদলান খানিকটা জামা-কাপড় বদলানোর ঢঙেই। এ রকম আর কী কী ব্যয়বহুল জিনিসপত্র রয়েছে রণবীরের তার বিস্তারিত তুলে ধরেছে আনন্দবাজার পত্রিকা। জেনে নেওয়া যাক সেগুলো সম্পর্কে-

বছরে রণবীরের রোজগার ১০২ কোটি টাকার কাছাকাছি। আর মোট সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ৩২০ কোটি টাকা। ১৩ বছর বয়সে মা-বাবার কাছ থেকে পেয়ে যান ৩ লক্ষ ২৫ হাজার টাকার মূল্যের একটি ট্যাগ হিউয়্যার মোনাকো গ্রাঁ প্রিঁ ঘড়ি। বহুদিন এই ঘড়ি ব্যবহার করেছিলেন রণবীর।

বলিউডে সাফল্য আসার সঙ্গে সঙ্গেই রণবীর একনাগাড়ে ঘড়ি কেনা শুরু করে দেন। বরাবরই হাবলট মেক্সিকান ঘড়ি কেনার ঝোঁক ছিল তার। ৮ লাখ ১৬ হাজার টাকা দামের একটি ঘড়ি রয়েছে রণবীরের।

বাইকের ঝোঁকও রণবীরের বরাবরের। আর সেই কথাটা খুব ভালোভাবে জানতেন সঞ্জয় দত্ত। একবার রণবীরের জন্মদিনে লাল টুকটুকে একটা হার্লে ডেভিডসন ফ্যাটবয় উপহার দিয়েছিলেন সঞ্জু বাবা। যার দাম প্রায় ১৮ লাখ টাকা। তবে এর জন্য নাকি ঋষি কাপুরের কাছে বকাও খেতে হয়েছিল সঞ্জয় দত্তকে।

অমিতাভ বচ্চনও রণবীরের অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে একটা ৫০ লাখ টাকা দামের ঘড়ি উপহার দিয়েছিলেন। আর সেই ঘড়ির নাম রিচার্ড মিলি আরএম ০১০।

ফ্যান্সি গাড়ির ক্ষেত্রে কিন্তু সালমান খান আর রণবীর কাপুরের পছন্দ অনেকটাই এক। সালমান খানের মতোই ১ কোটি ১২ লাখ টাকা মূল্যের একটি অডি এ এইট রয়েছে রণবীরের।

প্রায় ১ কোটি ৫১ লাখ টাকা মূল্যের একটি রেঞ্জ রোভার স্পোর্টও রয়েছে রণবীর কাপুরের।

শুধু রেঞ্জ রোভার বা অডি নয়। মার্সিডিজ বেঞ্জের লেটেস্ট মডেলটিও রয়েছে রণবীরের গ্যারেজে। প্রায় ২ কোটি টাকা মূল্যের একটি মার্সিডিজ বেঞ্জ জি ৬৩ রয়েছে রণবীর কাপুরের।

তবে রণবীরের গ্যারেজের সব থেকে দামি গাড়িটি হল অডি আর এইট ভি টেন। প্রায় আড়াই কোটি টাকা মূল্যের এই গাড়িটিই আয়রন ম্যান ছবির প্রথম পার্টে রবার্ট ডাউনি জুনিয়র ব্যবহার করেছিলেন।

পুণের ট্রাম্প টাওয়ারে একটি ফ্ল্যাট রয়েছে রণবীর কাপুরের। যে ফ্ল্যাটের দাম প্রায় ১৩ কোটি টাকা।

পালি হিলসে রণবীর কাপুরের ফোর বিএইচকে একটি ফ্ল্যাট রয়েছে। ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের রণবীরের এই অ্যাপার্টমেন্টটির অন্দরসজ্জা করেছেন গৌরী খান।

Add Comment